মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ ১১ আষাঢ় ১৪৩১
 
শিরোনাম: বিদায় ২০২৩ স্বাগত ২০২৪        নতুন বইয়ের ঘ্রাণে মাতবে ৩ কোটি ৮১ লাখ শিক্ষার্থী        জাতিসংঘসহ বিভিন্ন দেশের দূতাবাসে বিএনপির চিঠি        বিএনপির নেতাকর্মীরা এবার নৌকায় ভোট দেবে : তথ্যমন্ত্রী        ড. মঈন খানের সঙ্গে এনডিআই-আইআরআই পর্যবেক্ষক দলের বৈঠক        ‘অসুস্থ’ রিজভীকে খুঁজছে ডিবি, শিগগিরই গ্রেপ্তার        সবার আগে নিউজিল্যান্ড ও কিরিবাতিতে নববর্ষের উল্লাস শুরু       


হারুনকাণ্ড: প্রতিবেদন দিতে ৭ দিন সময় চেয়েছে কমিটি
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩, ৮:৪৫ PM

রাজধানীর শাহবাগ থানায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দুই নেতাকে নির্যাতনের ঘটনায় আজও তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে পারেনি গঠিত তদন্ত কমিটি। তারা এজন্য আরও সাত দিন সময় চেয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন নিউমার্কেট জোনের এডিসি শাহেন শাহ মাহমুদ।
পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, আমরা আজ প্রতিবেদন জমা দিইনি। তবে সময় বাড়ানোর জন্য ডিএমপি কমিশনারের কাছে আবেদন করা হয়েছে। তদন্ত কাজ শেষ না হওয়ায় প্রতিবেদন জমা দেওয়া সম্ভব হয়নি। জানা গেছে, এ ঘটনায় প্রথম দফায় কমিটিকে যে সময় দেওয়া হয়েছিল তার সাথে তারা আরও পাঁচ দিন সময় চেয়েছিল। আজ সেই প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কথা ছিল। তবে তদন্তকাজ শেষ না হওয়ায় আরও সাত দিনের সময় চাইল কমিটি। সূত্র জানিয়েছে, এডিসি হারুন ও সানজিদাকাণ্ডে এখন পর্যন্ত রাষ্ট্রপতির এপিএসসহ অর্ধশতাধিক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে তদন্ত কমিটি। এর মধ্যে হাসপাতালের নার্স, আনসার ও শাহবাগ থানার পুলিশ সদস্যরাও রয়েছেন। তবে তদন্ত কমিটি এডিসি হারুন ও সানজিদা ছাড়াও শাহবাগ থানা পুলিশের দোষ পেয়েছে। তারা ছাত্রলীগের দুই নেতাকে নির্যাতনের সত্যতাও পেয়েছে। যদিও বিষয়টি নিয়ে তদন্ত কমিটি এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি।

সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া সেদিনের একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা এডিসি হারুনকে গালাগাল করছেন। ভয়ে তটস্থ হারুন জড়োসড়ো হয়ে হাসপাতালের সেই কক্ষের এক কোণায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন। তাকে সেই ভিডিওতে কোনো প্রতিবাদ বা কথা বলতে দেখা যায়নি। তবে পরবর্তী সময়ে ছাত্রলীগ নেতাদের থানায় নিয়ে মারধরের পেছনে মূল ভূমিকা তিনিই পালন করেন বলে জানা গেছে।
গত ৯ সেপ্টেম্বর রাতে তুলে নিয়ে শাহবাগ থানা হেফাজতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দুই নেতাকে নির্যাতন করেন এডিসি হারুন-অর-রশীদ। আহতরা হলেন- ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও ফজলুল হক হলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন নাঈম এবং ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় বিজ্ঞানবিষয়ক সম্পাদক ও ঢাবির শহীদুল্লাহ হলের সাধারণ সম্পাদক শরীফ আহমেদ মুনিম। এই অভিযোগ ওঠে পুলিশের রমনা বিভাগের এডিসি হারুন-অর-রশীদের বিরুদ্ধে। তারা অভিযোগ করেন, তাদের থানায় নিয়ে বেদমভাবে পিটিয়েছেন হারুন। ছাত্রলীগের নেতা পরিচয় দেওয়ার পরও হারুনসহ সঙ্গে ১০-১৫ জন পুলিশ সদস্য মিলে তাদের পেটান। আলোচিত এ ঘটনায় ডিএমপির অপারেশন বিভাগের ডিসি আবু ইউসুফকে প্রধান করে নিউ মার্কেট জোনের এডিসি শাহেন শাহ মাহমুদ ও মতিঝিল ডিবির এডিসিকে সদস্য করে তিন সদস্যের কমিটি গঠিত হয়। এছাড়া সাময়িক বরখাস্ত করা হয় এডিসি হারুনকে।







আরও খবর


প্রকাশক: এম এন এইচ বুলু
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মাহফুজুর রহমান রিমন  |   উপদেষ্টা সম্পাদক : রাজু আলীম  
বিএনএস সংবাদ প্রতিদিন লি. এর পক্ষে প্রকাশক এম এন এইচ বুলু কর্তৃক ৪০ কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, বুলু ওশেন টাওয়ার, (১০তলা), বনানী, ঢাকা ১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত।
ফোন:০২৯৮২০০১৯-২০ ফ্যাক্স: ০২-৯৮২০০১৬ ই-মেইল: spnewsdesh@gmail.com