বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
 
শিরোনাম: এমপি আনার হত্যায় শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা        এমপি আনার সরকারকে জানিয়ে ভারতে যাননি: ওবায়দুল কাদের        ডিসি-ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ২৬১ বিলাসবহুল গাড়ি        অসন্তোষ ঘোচাতে ১৪ দলের সঙ্গে বসছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি        এপ্রিলে ৬৮৩ সড়ক দুর্ঘটনা, ঝরেছে ৭০৮ প্রাণ        ‘খুন’ কিন্তু ‘লাশ নেই’        তদন্তের স্বার্থে আমরা সবকিছু বলতে পারছি না: ডিবিপ্রধান       


আইএমএফের ঋণের শর্ত বাস্তবায়ন নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: শনিবার, ১১ মে, ২০২৪, ৬:১৭ পিএম |

আইএমএফের ঋণের শর্ত বাস্তবায়নে ব্যাংক ঋণের স্মার্ট সুদহার তুলে নিয়ে তা পুরোপুরি বাজারের ওপর ছেড়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সেই সঙ্গে বাড়ানো হয়েছে ডলারের দামও। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অর্থনীতির টালমাটাল অবস্থা রপ্তানি-রেমিট্যান্স বৃদ্ধি ও তারল্য নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে বাগে আনা যাবে।

যদিও এমন উদ্যোগের ফলে ব্যবসায়ী ও অর্থনীতিবিদদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে। ফলে সব ছাপিয়ে আলোচনার নতুন খোরাক- ডলারের দাম বৃদ্ধি ও বাজারভিত্তিক ব্যাংকের নতুন সুদহার। মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নরের ‘আউট অব বক্স থিওরি’ কাজে আসেনি। বরং, দীর্ঘদিন ঋণের সুদহার ৯ শতাংশের ঘরে বেঁধে রাখার ফলে অর্থ-বাণিজ্যের নানা সূচক ফুলে-ফেঁপে উঠে। সেই সঙ্গে অস্বস্তি ছিল স্মার্ট পদ্ধতির সুদহারেও। অবশেষে পুরোপুরি বাজারের ওপরই ভরসা রেখেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

স্মার্ট সুদহার তুলে নেয়ার ফলে এখন থেকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোই ঠিক করে দেবে আমানত ও ঋণের সুদহার। এর মূল উদ্দেশ্য, চাহিদা নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে মূল্যস্ফীতির লাগাম টানা। যার ফলশ্রুতিতে বিনিময় হারের পদ্ধতি ক্রলিং পেগ ধরে বাড়ানো হয়েছে ডলারের দামও। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের এমন সিদ্ধান্ত বাস্তবসম্মত নয় বলে মন্তব্য করেছেন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি মীর নাসির হোসেন। তিনি বলেন, আমি মনে করি, এগুলো সুচিন্তিতভাবে করা হচ্ছে না। আমরা ব্যাংকিং সেক্টরে অনেক অস্থিরতা দেখতে পাচ্ছি। সেখানে যদি একজন ব্যবসায়ী বা উদ্যোক্তা অসুবিধায় পরে তবে সে তো ব্যবসা চালিয়ে যেতে পারবে না।

সিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাশরুর আরেফিন বলেন, ডলার-টাকা রেটটা কিন্তু পরো বাজারে ছাড়া হয়নি। এটা একটা হাইব্রিড জিনিস। ওনারা (কেন্দ্রীয় ব্যাংক) মনে হয় আপারে বা লোয়ারে কতদূর যায় সেটা দেখতে চাচ্ছেন। অর্থাৎ, প্রাইস ডিসকাভারি প্রক্রিয়ার মধ্যেই আছি, এর মানে হলো সামনে ফুল মার্কেট রিভেন্ডারি চলে আসবে। যদিও বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন অর্থনীতিবিদ ও পিআরআইয়ের নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুর। তার দাবি, এর ফলে সাময়িক চাপ বাড়ালেও দীর্ঘমেয়াদে সুফল আসবে। এই অর্থনীতিবিদ বলেন, একজন অর্থনীতিবিদ হিসেবে আমি মনে করি, এটা আরও এক থেকে দেড় বছর আগে করা উচিত ছিল। তবে এটা অবশ্যই শর্ট টার্মে আমাদের একটা ধাক্কা দেবে, আমাদের কম্পিটিশনের দিকে নিয়ে যাবে- সেটা নিয়ে সন্দেহ নেই। কিন্তু মধ্যমেয়াদে আমাদের অর্থনীতির জন্য এটা ছাড়া কোনো গত্যন্তর ছিল না।







আরও খবর


 সর্বশেষ সংবাদ

‘নিপুণের নামে ৬৪ জেলায় মামলা হচ্ছে’
খালিয়াজুরীতে নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুরের মামলার নামে প্রতিপক্ষের সমর্থকদের হয়রানির অভিযোগ
অবশেষে দেখা মিলল বিমান ছিনতাইয়ের এক ঝলক
এমপি আনার হত্যায় শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা
এমপি আনার সরকারকে জানিয়ে ভারতে যাননি: ওবায়দুল কাদের
আরো খবর ⇒


 সর্বাধিক পঠিত

এমদিনা কাপ ক্রিকেট বিজয়ী বেলজিয়াম, টুর্নামেন্টের মূল স্পন্সর বাংলাদেশী শাহ গ্রূপ
ফ্রান্স প্রবাসী আবু তাহের মামুনের জানাজা আগামী বৃহস্পতিবার ১ ঘটিকায়
৩৮তম ফোবানা সম্মেলন শুরু ৩০ আগস্ট
উত্তরা বিএনএস সেন্টারের কর্মচারি নাঈম ও শামসুল হকের বিরুদ্ধে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ
কালীগঞ্জ আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত
প্রকাশক: এম এন এইচ বুলু
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মাহফুজুর রহমান রিমন  |   উপদেষ্টা সম্পাদক : রাজু আলীম  
বিএনএস সংবাদ প্রতিদিন লি. এর পক্ষে প্রকাশক এম এন এইচ বুলু কর্তৃক ৪০ কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, বুলু ওশেন টাওয়ার, (১০তলা), বনানী, ঢাকা ১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত।
ফোন:০২৯৮২০০১৯-২০ ফ্যাক্স: ০২-৯৮২০০১৬ ই-মেইল: spnewsdesh@gmail.com