শুক্রবার ২৫ জুন ২০২১ ১১ আষাঢ় ১৪২৮
 
শিরোনাম: তবুও ঢাকামুখী মানুষের ঢল        যেকোনো সময় যেকোনো সিদ্ধান্ত: ফরহাদ হোসেন       চলচ্চিত্রে পরিমণির নিষিদ্ধের গুঞ্জন!        সারাদেশে ১৪ দিনের ‘শাটডাউনের’ সুপারিশ        দেশে আক্রান্ত আরও বাড়ল, মৃত্যু ৮১        চামড়া সিন্ডিকেট রোধে নজরদারি করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী       চারটি আইনে রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষর      


ঝুম বৃষ্টির পর জলজট ও যানজট
নাকাল রাজধানীবাসী!
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ৯ জুন, ২০২১, ৮:১২ পিএম আপডেট: ০৯.০৬.২০২১ ৮:৩২ পিএম |

কর্মদিবস হওয়ায় গতকাল বুধবার এমনিতে রাজধানী ঢাকার সড়কে যানবাহন ও মানুষের চাপ ছিলো। এর মধ্যে কয়েক দফা মুষলধারে বৃষ্টির কারণে তীব্র আকার ধারণ করে যানজট। অনেক সড়কে বৃষ্টির পানি জমে জলজটের সৃষ্টি হওয়ায় জনসাধারণের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, মৌসুমি বায়ুর দেশের উপর সক্রিয় হওয়ার কারণে বৃষ্টি বাড়ছে। সামনে আরও বাড়বে ঢাকাসহ অন্যান্য অনেক অঞ্চলের বৃষ্টি। ভারী বৃষ্টিতে পুরান ঢাকার তাঁতীবাজার, বংশাল হয়ে গুলিস্তান পর্যন্ত সড়কে কোথাও রাস্তার উভয় পাশে, কোথাও একপাশে তীব্র যানজট লক্ষ্য করা গেছে। এছাড়া পল্টন, শাহবাগ, নিউমার্কেট এলাকাতেও রাস্তায় গাড়ি ধীরগতিতে চলতে দেখা যায়। কারণ বৃষ্টির পর থেকে গাড়ির অনেক চাপ থাকে সড়কে। রাজধানীর গুলিস্তান থেকে রামপুরা যেতে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা পর বাসের উঠেছেন এমরান আলী। তিনি বলেন, বৃষ্টিতে গুলিস্তানের কিছু কিছু জায়গায় জলাবদ্ধতা হয়েছে। সেই পানি পেরিয়ে বাসে উঠার চেষ্টা শুরু করলাম। দুই সিটে একজন যাত্রী নেওয়ায় আগে থেকেই বাস পরিপূর্ণ। তাই মাঝপথ থেকে যাত্রীরা বাসে উঠতে পারছেন না। তিনি বলেন, গুলিস্তান থেকে বিজয় নগর আসতেই দীর্ঘ সময় যানজটে আটকে থাকতে হচ্ছে। বৃষ্টির পর একদিকে জলাবদ্ধতার ভোগান্তি, অন্যদিকে যানজটের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ভিক্টর ক্লাসিকের চালক সাজেদুর রহমান বলেন, বৃষ্টিতে মানুষ বিভিন্ন জায়গায় আটকে ছিল। বৃষ্টি শেষ হওয়া মাত্রই সবাই রাস্তায় এসেছেন। তাই বৃষ্টির পর সড়কে যাত্রীর চাপ এবং যানজট দুটোই বেড়েছে। এছাড়া জলাবদ্ধতা থাকলে যানজট এমনিতেই সৃষ্টি হয়। গুলিস্তানে বাসের জন্য অপেক্ষা করা শহিদুল ইসলাম নামের আরেক যাত্রী বলেন, সড়কে পানি জমে আছে। এরমধ্যে আবার শত শত যাত্রী বাসের অপেক্ষায় আছে। অনেকেই বাসে উঠতে পারছেন না। বৃষ্টি হলেই আমাদের মত সাধারণ মানুষদের ভোগান্তি পোহাতে হয়।
এদিকে আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু চট্টগ্রাম, বরিশাল, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগ পর্যন্ত অগ্রসর হতে পারে। দেশের অবশিষ্টাংশে মৌসুমি বায়ু আরও অগ্রসর হওয়ার জন্য আবহাওয়াগত পরিস্থিতি অনুকূলে রয়েছে। মৌসুমি বায়ু দেশের পূর্বাঞ্চলের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে এটি মাঝারি অবস্থায় বিরাজ করছে।
গতকাল বুধবার ভোর থেকেই দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি হচ্ছে। রাজধানীতে সকাল থেকে অনেক এলাকায় ঝিরিঝিরি বৃষ্টি হলেও দুপুরে বৃষ্টি শুরু হয় মুষলধারে। আজ বৃহস্পতিবার একই অবস্থা থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।









প্রকাশক: এম এন এইচ বুলু
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মাহফুজুর রহমান রিমন  
বিএনএস সংবাদ প্রতিদিন লি. এর পক্ষে প্রকাশক এম এন এইচ বুলু কর্তৃক ৪০ কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, বুলু ওশেন টাওয়ার, (১০তলা), বনানী, ঢাকা ১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত।
ফোন:০২৯৮২০০১৯-২০ ফ্যাক্স: ০২-৯৮২০০১৬ ই-মেইল: [email protected]