রোববার ১৬ মে ২০২১ ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
 
শিরোনাম: আল জাজিরা-এপির কার্যালয় ভবন গুঁড়িয়ে দিল ইসরায়েল       রবিবার আসছে শ্রীলঙ্কা দল       বিএনপির উচিত প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানানো: তথ্যমন্ত্রী       সুস্থ, সচল ও অত্যাধুনিক ঢাকা গড়তে চান মেয়র আতিক       বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ছে ২৩ মে পর্যন্ত, প্রজ্ঞাপন রোববার       শনাক্ত ৩০০-এর নিচে, কমল মৃত্যুও       দেশে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে উদ্বেগ      


নারীদের জন্য ইতিকাফের বিধানসমূহ
ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশ: সোমবার, ৩ মে, ২০২১, ৭:৩৭ পিএম |

নারীদের মধ্যে ইতিকাফের ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টি করা উচিত। পুরুষদের উচিত নারীদের ইতিকাফের জন্য উদ্বুদ্ধ করা এবং সুযোগ তৈরি করে দেয়া। তাহলে পুরুষরাও সওয়াব পাবেন।
‘ইতিকাফ’ আরবি শব্দ। যার অর্থ হলো অবস্থান করা, আবদ্ধ করা বা আবদ্ধ রাখা। রমজানের শেষ দশকে শবে কদরের খোঁজে রাসূলুল্লাহ হজরত মুহাম্মাদ (সা.) ইতিকাফ করতেন। একাধিক হাদিসে বিষয়টির উল্লেখ রয়েছে।

প্রিয় নবী রাসূলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, ‘আল্লাহ সন্তুষ্টির নিয়তে যে ব্যক্তি মাত্র একদিন ইতিকাফ করবে আল্লাহ তায়ালা তার ও জাহান্নামের মাঝে তিনটি পরিখার সমান দূরত্ব সৃষ্টি করে দেবেন। যে পরিখাগুলোর প্রতিটির দূরত্বই আসমান-জমিনের মধবর্তী দূরত্বের সমান।’

নারীদের ইতিকাফের বিধান :
ইতিকাফ শুধু পুরুষের জন্য নয়। নারীরাও কিন্তু ইতিকাফ করতে পারেন। হজরত মুহাম্মাদ (সা.) এর সহধর্মিণীরা ইতিকাফ করতেন। হজরত আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, হজরত নবী করিম (সা.) তার ওফাত পর্যন্ত রমজানের শেষ দশকের ইতিকাফ করতেন। তার ওফাতের পর তার স্ত্রীরা ইতিকাফ করেছেন।  (সহিহ বুখারি: ২০২৬ ও সহিহ মুসলিম: ১১৭২)।

মাসয়ালা: নারীদের নামাজের স্থান তাদের ঘরের অন্দরমহল, মসজিদ নয়। কিন্তু নারীরা সওয়াবের ক্ষেত্রে ঘরে নামাজ পড়ে ও ঘরে ইতিকাফ করে পুরুষদের মসজিদে নামাজ পড়ার সমপরিমাণ সওয়াবের অধিকারী বলে সহিহ হাদিস দ্বারা প্রমাণিত। এ অর্থে নারীদের ঘরকে মসজিদের সাদৃশ্য আখ্যা দেয়া হয়েছে। যেন নারীরা বেশি সওয়াব হাসিল করার আশায় মসজিদে আসার জন্য উদগ্রিব না হয়। মসজিদে গিয়ে শেষ ১০ দিন ইতিকাফ সুন্নতে মোয়াক্কাদার হুকুম পুরুষদের জন্য, নারীদের জন্য নয়। সুতরাং নারীরা চাই ঘরে ইতিকাফ করুক চাই মসজিদে পুরুষদের দায়িত্ব আদায় হবে না। তবে পুরুষদের মধ্যে একজনও যদি মসজিদে ইতিকাফ করে তাহলে গ্রামবাসীর পক্ষ হতে তা আদায় হয়ে সবাই দায়মুক্ত হয়ে যাবে। (সহহি বুখারি, হাদিস : ২০৩৩, উমদাতুল কারী : ১১/১৪৮, বাদায়েউস সানায়ে: ২/১১৩, ফাতাওয়ায়ে মাহমুদিয়া : ১৩/১৪৫)।

মাসয়ালা: নারীরা ঘরে নামাজ ও অন্যান্য ইবাদতের জন্য নির্ধারিত স্থানে ইতিকাফ করবেন। যদি আগে থেকেই ঘরে নামাজের জন্য কোনো স্থান নির্ধারিত না থাকে তাহলে ইতিকাফের জন্য একটি স্থান নির্ধারিত করে নেবেন। সেখানেই ইতিকাফ করবেন। (হেদায়া : ১/২৩০, আলমগীরি : ১/২১১)।

মাসয়ালা: রমজানের শেষ দশকের ইতিকাফ পুরুষের জন্য সুন্নতে মুয়াক্কাদা আলাল কিফায়া, তবে নারীদের জন্য তা মুস্তাহাব।

মাসয়ালা: বিবাহিত নারীকে রমজানের শেষ দশকের ইতিকাফ বা অন্য সময়ের নফল ইতিকাফের জন্য স্বামীর অনুমতি নিতে হবে। স্বামীর অনুমতি ছাড়া ইতিকাফ করা অনুচিত। স্বামীদের উচিত, যুক্তিসঙ্গত, গ্রহণযোগ্য কারণ ছাড়া স্ত্রীদের ইতিকাফে বাধা না দেয়া। তাদের ইতিকাফের সুযোগ দেয়া। এতে কিন্তু উভয়ই সওয়াব পাবেন। (শামী : ৩/৪২৯, আলমগীরি : ১/২১১)।

মাসয়ালা: স্বামী স্ত্রীকে ইতিকাফের অনুমতি দেয়ার পর আর বাধা দিতে পারবেন না। বাধা দিলেও সে বাধা মানা স্ত্রীর জন্য জরুরি নয়। (শামী : ৩/৪২৮, আলমগীরি : ১/২১১)।

মাসয়ালা: ইতিকাফ অবস্থায় (রাতেও) স্বামী-স্ত্রী মেলামেশা করা যাবে না। করলে ইতিকাফ ফাসিদ হয়ে যাবে।  (সূরা বাকারা : ১৮৭, বাদায়ে: ২/২৮৫, শামী : ৩/৪৪২)।

মাসয়ালা: নারীদের ইতিকাফের জন্য হায়েজ-নেফাস থেকে পবিত্র হওয়া শর্ত। হায়েজ, নেফাস অবস্থায় ইতিকাফ সহিহ হয় না। (বাদায়ে : ২/২৭৪, আলমগীরি : ১/২১১)।

মাসয়ালা: নারীর ইতিকাফে বসার আগেই হায়েজ-নেফাসের দিন-তারিখ হিসাব করে বসা উচিত। যাতে ইতিকাফ শুরু করার পর পিরিয়ড শুরু হয়ে না যায়। তবে কারোর রমজানের শেষ দশকে পিরিয়ড হওয়ার নিয়ম থাকলে তিনি পিরিয়ড শুরু হওয়া পর্যন্ত নফল ইতিকাফ করতেই পারেন।

মাসয়ালা: ওষুধ-বড়ি খেয়ে পিরিয়ড বন্ধ রেখে রোজা রাখলে, ইতিকাফ করলে রোজা ও ইতিকাফ সহিহ হবে।

মাসয়ালা: ইতিকাফ শুরু করার পর পিরিয়ড শুরু হয়ে গেলে ইতিকাফ ভঙ্গ হয়ে যাবে। পরে শুধু একদিনের ইতিকাফ রোজাসহ কাজা করতে হবে। (আহসানুল ফাতাওয়া : ৪/৫০২)।

মাসয়ালা: নারীরা ঘরের যে স্থানটিকে ইতিকাফের জন্য নির্ধারিত করবেন তা মসজিদের মতো গণ্য হবে। মানবিক প্রয়োজন ছাড়া তারা সেখান থেকে বের হতে পারবেন না। মানবিক প্রয়োজন ছাড়া সে স্থানের বাইরে গেলে ইতিকাফ ফাসিদ হয়ে যাবে। (আলমগীরি : ১/২১১, বাদায়ে : ২/২৮২)।

মাসয়ালা: মানবিক প্রয়োজন বলতে বুঝায়, প্রস্রাব-পায়খানা। সুতরাং ইতিকাফ অবস্থায় নারীরা প্রস্রাব-পায়খানার জন্য ইতিকাফের স্থান থেকে বের হতে পারবেন। ওজুর জন্য বাইরে যেতে পারবেন।

নারীরা খুব কমই ইতিকাফ করেন। অথচ ইতিকাফ অত্যন্ত সওয়াবের কাজ। নারীদের জন্য ইতেকাফ খুব সহজও। কারণ তারা ঘরেই ইতিকাফ করবেন। ফলে সংসারের খোঁজখবরও নিতে পারবেন। সংসার ঠিক রেখে তাদের ইতিকাফও হয়ে যাবে।

সুতরাং এমন সুযোগ হাতছাড়া করা মোটেই উচিত নয়। নারীদের মধ্যে ইতিকাফের ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টি করা উচিত। পুরুষদের উচিত নারীদের ইতিকাফের জন্য উদ্বুদ্ধ করা এবং সুযোগ তৈরি করে দেয়া। তাহলে পুরুষরাও সওয়াব পাবেন। 







 সর্বশেষ সংবাদ

আল জাজিরা-এপির কার্যালয় ভবন গুঁড়িয়ে দিল ইসরায়েল
বিচ্ছেদের ৪ বছর পর আজ মুখোমুখি হচ্ছেন তাহসান-মিথিলা!
রবিবার আসছে শ্রীলঙ্কা দল
বিএনপির উচিত প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানানো: তথ্যমন্ত্রী
সুস্থ, সচল ও অত্যাধুনিক ঢাকা গড়তে চান মেয়র আতিক
বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ছে ২৩ মে পর্যন্ত, প্রজ্ঞাপন রোববার
শনাক্ত ৩০০-এর নিচে, কমল মৃত্যুও
আরো খবর ⇒

 সর্বাধিক পঠিত

মিরপুর প্রেসক্লাবের সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতা উন্নয়ন শীর্ষক আলোচনা ও ইফতার মাহফিল
বাক প্রতিবন্ধী মিতুর পরিবারের পাশে উপজেলা চেয়ারম্যান হামিদ মাস্টার
জেনিফার ফেরদৌসের উপস্থাপনায় বিটিভিতে আজ ঈদের বিশেষ `ছায়াছন্দ'
শান্তিসংঘ'র আয়োজনে ছিন্নমূল মানুষের জন্য ইফতার আয়োজন
গাজীপুর সাংবাদিকদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার বিতরণ
গৌরনদী প্রেসক্লাব এর উদ্যোগে ইফ্তার মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠিত
গোল্ডেন মনির ও সিরাজগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা হচ্ছে
প্রকাশক: এম এন এইচ বুলু
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মাহফুজুর রহমান রিমন  
বিএনএস সংবাদ প্রতিদিন লি. এর পক্ষে প্রকাশক এম এন এইচ বুলু কর্তৃক ৪০ কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, বুলু ওশেন টাওয়ার, (১০তলা), বনানী, ঢাকা ১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত।
ফোন:০২৯৮২০০১৯-২০ ফ্যাক্স: ০২-৯৮২০০১৬ ই-মেইল: [email protected]